ঢাকা ০৪:৩৭ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১১ জুন ২০২৩, ২৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম
৩০ মার্চ থেকে হাসপাতালেই ভিজিট নিয়ে রোগী দেখবেন চিকিৎসকরা : স্বাস্থ্যমন্ত্রী মুন্সিগঞ্জে বিরাশিয়ান বন্ধুদের মিলনমেলায় মেয়র আইভী চাঁদপুর পৌর শহীদ জাবেদ স্কুল এন্ড কলেজের প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের পূর্ণমিলনী কার্যক্রমের সূচনা মোল্লাকান্দিতে ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে বাড়ি-ঘর লুট ও ভাঙচুরের অভিযোগ শ্রীনগরে বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচি পালন শ্রীনগরে চাঁদাবাজির মামলায় ইউপি সদস্য গ্রেফতার মুন্সীগঞ্জে জমির মালিকানা নিয়ে ধুম্রজাল পদ্মা সেতুতে ছয় মাসে আয় ৩৯৫ কোটি করোনায় চিকিৎসাহীন কেউ মারা গেলে তা ফৌজদারী অপরাধ : হাইকোর্ট আত্মহত্যা করেছেন বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুত

করোনা মোকাবেলায় কৃষিতে করনীয় বিষয়ক সেমিনার অনুষ্ঠিত

প্রতিনিধির নাম
  • প্রকাশ : ১২:৩১:০১ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ জুন ২০২০ ৬১
খবরের কাগজ অনলাইনের সর্বশেষ সংবাদ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

করোনা মোকাবেলায় কৃষিতে করনীয় বিষয়ক এক সেমিনার গতকাল বৃহস্পতিবার (১১ জুন) সকালে ময়মনসিংহ নগরীর কেওয়াটখালিস্থ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত পরিচালকের কার্যালয়ের কনফারেন্স রুমে অনুষ্ঠিত হয়েছে। উক্ত সেমিনারে বিষয় বস্তুর উপর মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন এবং প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর ময়মনসিংহ অঞ্চল এর অতিরিক্ত পরিচালক কৃষিবিদ নিখিল চন্দ্র সেন। তিনি বলেন, কভিড-১৯ অদৃশ্য জীবানু। বর্তমানে বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও করোনার মহামারী ঠেকাতে হিমশিম খাচ্ছে। এই উদ্ভুত পরিস্থিতিতে খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে কৃষির কোন বিকল্প নাই। করোনার ভয়াবহতাতেও কিন্তু কৃষি থেমে নেই। সর্বোচ্চ সচেতনতায় কৃষির কার্যক্রম গুলো এগিয়ে নিতে হবে, না হয় দেশ ক্ষুধা যুদ্ধে ভূপাতিত হবে। তিনি আরো জানান, সবার প্রথমেই নজর দিতে হবে কৃষকের স্বাস্থ্য সচেতনতায়। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নির্দেশনা মোতাবেক সকল স্বাস্থ্য বিধি নিশ্চিত করতে হবে। তাছাড়া কৃষি সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গের মাঝে সচেতনতায় মনোযোগী হতে হবে। তিনি আরো জানান, খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা মোতাবেক কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সর্বদা মাঠ পর্যায়ে কাজ করছে। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর মাঠে বর্তমানে খরিপ-১ মৌসুমের ফসল সমূহের পরিচর্যা ও খরিপ-২ মৌসুমের রোপা আমন আবাদ ও উৎপাদন বৃদ্ধির কৌশল গ্রহন করেছে। তিনি জানান খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে রোপা আউশ দারুন ভূমিকা পালন করতে পারে। নগদ অর্থ উপার্জনে পাটের বিকল্প নাই। করোনাকালীন সময়ে নগদ অর্থ টানিক হিসাবে কাজ করবে। করোনার সময়ে পুষ্টিকর খাবার খাওয়া খুবই গুরুত্ব পূর্ণ। তাই ভালো ফলন পেতে গ্রীষ্মকালীন শাকসবজির প্রতি যতœবান হতে হবে। করোনা পরিস্থিতিতে খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতেই হবে। তাই ফসল উৎপাদনের গুরুত্ব বিশাল। একমাত্র স্বাস্থ্য সচেতনতাই পারে কভিড-১৯ কে রুখতে। নিজে সচেতন হউন, অন্যকেও সচেতন হতে সহায়তা করুন। করোনার সময়েও কৃষি বেঁচে থাকুক, কৃষিই বাঁচিয়ে রাখবে মানব সভ্যতাকে। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপতÍ আঞ্চলিক কার্যালয়ের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ ড. রেজাউল করিমের সভাপতিত্বে এবং কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের ট্রেনিং কো-অর্ডিনেটর কৃষিবিদ শাহ্জাহান সিরাজ এর পরিচালনায় সেমিনারে ডিএই নেত্রকোনার উপ-পরিচালক কৃষিবিদ হাবিবুর রহমান, ডিএই নেত্রকোনা জেলা প্রশিক্ষন কর্মকর্তা কৃষিবিদ সাইফুল ইসলাম, ডিএই ময়মনসিংহ জেলা প্রশিক্ষন কর্মকর্তা কৃষিবিদ মতিউজ্জামান লাভলু প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। কৃষি তথ্য সার্ভিস এর আঞ্চলিক কার্যালয় আয়োজিত সেমিনারে স্বাগত বক্তব্য রাখেন কৃষি তথ্য সার্ভিস ময়মনসিংহ আঞ্চলিক অফিসের সহকারী তথ্য অফিসার জাহাঙ্গীর আলী খান। সেমিনারে ডিএই জেলা পর্যায়ের কর্মকর্তা, উপজেলা কৃষি অফিসার, অতিঃ কৃষি অফিসার, কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা, এআইসিসির সদস্য বৃন্দ ও সাংবাদিক বৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

করোনা মোকাবেলায় কৃষিতে করনীয় বিষয়ক সেমিনার অনুষ্ঠিত

প্রকাশ : ১২:৩১:০১ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৩ জুন ২০২০

করোনা মোকাবেলায় কৃষিতে করনীয় বিষয়ক এক সেমিনার গতকাল বৃহস্পতিবার (১১ জুন) সকালে ময়মনসিংহ নগরীর কেওয়াটখালিস্থ কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত পরিচালকের কার্যালয়ের কনফারেন্স রুমে অনুষ্ঠিত হয়েছে। উক্ত সেমিনারে বিষয় বস্তুর উপর মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন এবং প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর ময়মনসিংহ অঞ্চল এর অতিরিক্ত পরিচালক কৃষিবিদ নিখিল চন্দ্র সেন। তিনি বলেন, কভিড-১৯ অদৃশ্য জীবানু। বর্তমানে বিশ্বের অন্যান্য দেশের মতো বাংলাদেশেও করোনার মহামারী ঠেকাতে হিমশিম খাচ্ছে। এই উদ্ভুত পরিস্থিতিতে খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে কৃষির কোন বিকল্প নাই। করোনার ভয়াবহতাতেও কিন্তু কৃষি থেমে নেই। সর্বোচ্চ সচেতনতায় কৃষির কার্যক্রম গুলো এগিয়ে নিতে হবে, না হয় দেশ ক্ষুধা যুদ্ধে ভূপাতিত হবে। তিনি আরো জানান, সবার প্রথমেই নজর দিতে হবে কৃষকের স্বাস্থ্য সচেতনতায়। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নির্দেশনা মোতাবেক সকল স্বাস্থ্য বিধি নিশ্চিত করতে হবে। তাছাড়া কৃষি সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গের মাঝে সচেতনতায় মনোযোগী হতে হবে। তিনি আরো জানান, খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা মোতাবেক কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর সর্বদা মাঠ পর্যায়ে কাজ করছে। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর মাঠে বর্তমানে খরিপ-১ মৌসুমের ফসল সমূহের পরিচর্যা ও খরিপ-২ মৌসুমের রোপা আমন আবাদ ও উৎপাদন বৃদ্ধির কৌশল গ্রহন করেছে। তিনি জানান খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে রোপা আউশ দারুন ভূমিকা পালন করতে পারে। নগদ অর্থ উপার্জনে পাটের বিকল্প নাই। করোনাকালীন সময়ে নগদ অর্থ টানিক হিসাবে কাজ করবে। করোনার সময়ে পুষ্টিকর খাবার খাওয়া খুবই গুরুত্ব পূর্ণ। তাই ভালো ফলন পেতে গ্রীষ্মকালীন শাকসবজির প্রতি যতœবান হতে হবে। করোনা পরিস্থিতিতে খাদ্য নিরাপত্তা নিশ্চিত করতেই হবে। তাই ফসল উৎপাদনের গুরুত্ব বিশাল। একমাত্র স্বাস্থ্য সচেতনতাই পারে কভিড-১৯ কে রুখতে। নিজে সচেতন হউন, অন্যকেও সচেতন হতে সহায়তা করুন। করোনার সময়েও কৃষি বেঁচে থাকুক, কৃষিই বাঁচিয়ে রাখবে মানব সভ্যতাকে। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপতÍ আঞ্চলিক কার্যালয়ের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ ড. রেজাউল করিমের সভাপতিত্বে এবং কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের ট্রেনিং কো-অর্ডিনেটর কৃষিবিদ শাহ্জাহান সিরাজ এর পরিচালনায় সেমিনারে ডিএই নেত্রকোনার উপ-পরিচালক কৃষিবিদ হাবিবুর রহমান, ডিএই নেত্রকোনা জেলা প্রশিক্ষন কর্মকর্তা কৃষিবিদ সাইফুল ইসলাম, ডিএই ময়মনসিংহ জেলা প্রশিক্ষন কর্মকর্তা কৃষিবিদ মতিউজ্জামান লাভলু প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। কৃষি তথ্য সার্ভিস এর আঞ্চলিক কার্যালয় আয়োজিত সেমিনারে স্বাগত বক্তব্য রাখেন কৃষি তথ্য সার্ভিস ময়মনসিংহ আঞ্চলিক অফিসের সহকারী তথ্য অফিসার জাহাঙ্গীর আলী খান। সেমিনারে ডিএই জেলা পর্যায়ের কর্মকর্তা, উপজেলা কৃষি অফিসার, অতিঃ কৃষি অফিসার, কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা, এআইসিসির সদস্য বৃন্দ ও সাংবাদিক বৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।