ঢাকা ০১:২১ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ০২ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ১৯ মাঘ ১৪২৯ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম
চাঁদপুর পৌর শহীদ জাবেদ স্কুল এন্ড কলেজের প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের পূর্ণমিলনী কার্যক্রমের সূচনা মোল্লাকান্দিতে ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে বাড়ি-ঘর লুট ও ভাঙচুরের অভিযোগ শ্রীনগরে বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবসে স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচি পালন শ্রীনগরে চাঁদাবাজির মামলায় ইউপি সদস্য গ্রেফতার মুন্সীগঞ্জে জমির মালিকানা নিয়ে ধুম্রজাল পদ্মা সেতুতে ছয় মাসে আয় ৩৯৫ কোটি করোনায় চিকিৎসাহীন কেউ মারা গেলে তা ফৌজদারী অপরাধ : হাইকোর্ট আত্মহত্যা করেছেন বলিউড অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুত ‘রেড জোন’ হিসেবে চিহ্নিত যেসব এলাকা… ধর্ম পালনের জন্য মিডিয়াকে ‘গুডবাই’ জানালেন সুজানা!

মোল্লাকান্দিতে ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে বাড়ি-ঘর লুট ও ভাঙচুরের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • আপডেট সময় : ০১:১৬:৫৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২৩ ১৯ বার পড়া হয়েছে
আজকের জার্নাল অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

মুন্সিগঞ্জ সদরের মোল্লাকান্দিতে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে পূর্ব বিরোধের জের ধরে ৬নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ফয়েজ বেপারী ও তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে বাড়ি-ঘর লুট ও ভাঙচুরের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

ইউনিয়নের নতুন আমঘাটা নয়াকান্দি এলাকার মৃত সেলিম মিয়ার স্ত্রী আনোয়ারা বেগম (৫০) মুন্সিগঞ্জ সদর থানায় এই অভিযোগ করেছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ইউনিয়নের নতুন আমঘাটা নয়াকান্দি এলাকার ইউপি সদস্য ফয়েজ বেপারী ওরফে ফারেজ (৫০), মাহফুজ বেপারি (৫৬), সানি বেপারী (১৮), শাওন বেপারী (২০), হাসান বেপারী (১৮), মাসুম বেপারী (২৮) সহ অজ্ঞাত আরও ৫-৭ জন গেল ২২ জানুয়ারি তারিখ বিকাল আনুমানিক সাড়ে ৪টা’র দিকে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে পরষ্পর যোগসাজসে আনোয়ারা বেগমের বসত বাড়িতে অনধিকার ও জোর পূর্বক প্রবেশ করে এলোপাথাড়িভাবে  বাড়িঘর ভাঙচুর করে।

আনোয়ারা বেগম অভিযোগ করে আরও বলেন, এসময় তারা বসত ঘরের টিনের বেড়া, কাঠের দরজা-জানালা সহ অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ জিনিসপত্র ভাঙচুর করে প্রায় ৩ লাখ টাকার ক্ষতিসাধন করে। বিবাদীগণ আমার দেবর খালেক শেখ এর দু-চালা টিনের বসত ঘর পুরোটাই ভাঙচুর করে নিয়ে যায়। যার মূল্য অনুমান আড়াই লাখ টাকা হবে। একই সময় সকল বিবাদীগণ আমার আরেক দেবর মালেক এর চৌচালা টিনের বসত ঘরের দরজা, জানালা, বেড়া, আড়া সহ বিভিন্ন জিনিসপত্র ভাঙচুর করে নিয়ে যায়। যার মূল্য অনুমান ৫লাখ টাকা টাকা। এছাড়াও বিবাদীগণ আমার ছেলে আলমগীর শেখ এর চৌ-চালা টিনের বসত ঘর ভাঙচুর করে নিয়ে যায়। যার মূল্য অনুমান- সাড়ে ৪লাখ টাকা।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে ৬নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ফয়েজ বেপারী বলেন, আমার ভাইকে ২০২১ সালে নির্মমভাবে হত্যা করে ঐ পক্ষটি। সেসময় উত্তেজিত জনতা আসামিদের ঘরবাড়ি ভাঙচুর করে। ঘটনার দুইবছর পার হয়ে গেছে। সম্প্রতি এমন কোন ঘটনা ঘটেনি। বর্তমানে এলাকায় শান্ত পরিবেশ রয়েছে।

মুন্সিগঞ্জ সদর থানার উপ পরিদর্শক আরিফুর রহমান বলেন, থানায় অভিযোগ পাওয়া গেছে। তদন্ত সাপেক্ষে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

নিউজটি শেয়ার করুন

ট্যাগস :

মোল্লাকান্দিতে ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে বাড়ি-ঘর লুট ও ভাঙচুরের অভিযোগ

আপডেট সময় : ০১:১৬:৫৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২৩

মুন্সিগঞ্জ সদরের মোল্লাকান্দিতে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে পূর্ব বিরোধের জের ধরে ৬নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ফয়েজ বেপারী ও তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে বাড়ি-ঘর লুট ও ভাঙচুরের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

ইউনিয়নের নতুন আমঘাটা নয়াকান্দি এলাকার মৃত সেলিম মিয়ার স্ত্রী আনোয়ারা বেগম (৫০) মুন্সিগঞ্জ সদর থানায় এই অভিযোগ করেছেন।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ইউনিয়নের নতুন আমঘাটা নয়াকান্দি এলাকার ইউপি সদস্য ফয়েজ বেপারী ওরফে ফারেজ (৫০), মাহফুজ বেপারি (৫৬), সানি বেপারী (১৮), শাওন বেপারী (২০), হাসান বেপারী (১৮), মাসুম বেপারী (২৮) সহ অজ্ঞাত আরও ৫-৭ জন গেল ২২ জানুয়ারি তারিখ বিকাল আনুমানিক সাড়ে ৪টা’র দিকে পূর্ব পরিকল্পিতভাবে পরষ্পর যোগসাজসে আনোয়ারা বেগমের বসত বাড়িতে অনধিকার ও জোর পূর্বক প্রবেশ করে এলোপাথাড়িভাবে  বাড়িঘর ভাঙচুর করে।

আনোয়ারা বেগম অভিযোগ করে আরও বলেন, এসময় তারা বসত ঘরের টিনের বেড়া, কাঠের দরজা-জানালা সহ অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ জিনিসপত্র ভাঙচুর করে প্রায় ৩ লাখ টাকার ক্ষতিসাধন করে। বিবাদীগণ আমার দেবর খালেক শেখ এর দু-চালা টিনের বসত ঘর পুরোটাই ভাঙচুর করে নিয়ে যায়। যার মূল্য অনুমান আড়াই লাখ টাকা হবে। একই সময় সকল বিবাদীগণ আমার আরেক দেবর মালেক এর চৌচালা টিনের বসত ঘরের দরজা, জানালা, বেড়া, আড়া সহ বিভিন্ন জিনিসপত্র ভাঙচুর করে নিয়ে যায়। যার মূল্য অনুমান ৫লাখ টাকা টাকা। এছাড়াও বিবাদীগণ আমার ছেলে আলমগীর শেখ এর চৌ-চালা টিনের বসত ঘর ভাঙচুর করে নিয়ে যায়। যার মূল্য অনুমান- সাড়ে ৪লাখ টাকা।

অভিযোগের বিষয়ে জানতে চাইলে ৬নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য ফয়েজ বেপারী বলেন, আমার ভাইকে ২০২১ সালে নির্মমভাবে হত্যা করে ঐ পক্ষটি। সেসময় উত্তেজিত জনতা আসামিদের ঘরবাড়ি ভাঙচুর করে। ঘটনার দুইবছর পার হয়ে গেছে। সম্প্রতি এমন কোন ঘটনা ঘটেনি। বর্তমানে এলাকায় শান্ত পরিবেশ রয়েছে।

মুন্সিগঞ্জ সদর থানার উপ পরিদর্শক আরিফুর রহমান বলেন, থানায় অভিযোগ পাওয়া গেছে। তদন্ত সাপেক্ষে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।